বহির্বিশ্ব জাতীয়তাবাদী ফোরামের অর্থায়নে অসহায় পরিবারে ২টি পাকাঘর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

কুলাউড়া মৌলভীবাজার রাজনীতি

নিজস্ব প্রতিবেদক:: বহির্বিশ্ব জাতীয়তাবাদী ফোরাম কুলাউড়া উপজেলার অর্থায়নে ও উপজেলা বি এন পির সার্বিক তত্বাবধান ভূকশিমইল ইউনিয়ন ও ভাটেরা ইউনিয়নের অসহায় পরিবারে দুটি পাকাঘর নির্মানের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন করা হয়েছে।


রবিবার (১২ সেপ্টেম্বর) সকালে উপজেলা বিএনপি ও ইউনিয়ন বিএনপির নের্তৃবৃন্দের উপস্থিতিতে এ ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন করা হয়।

এরপূর্বে আয়োজিত এক ভার্চুয়াল আলোচনাসভায় বহিঃবিশ্ব জাতীয়তাবাদী ফোরাম কুলাউড়ার সভাপতি অধ্যাপক ড.সাইফুল আলম চৌধুরীর সভাপতিত্বে, সাধারন সম্পাদক সৈয়দ জুবায়ের আলীর সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা বিএনপির সভাপতি জয়নাল আবেদিন বাচ্চু, সহ-সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান মনির, সাধারন সম্পাদক বদরুজ্জামান সজল, সাংগঠনিক সম্পাদক সুফিয়ান আহমেদ, আব্দুস সালাম, কোষাধ্যক্ষ আব্দুল মান্নান, বহিঃবিশ্ব জাতীয়তাবাদী ফোরামের উপদেষ্টা বদরুল আলম চৌধুরী শিপলু, সিনিয়র সহ সভাপতি অধ্যাপক কমর উদ্দীন জামাল, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক এডভোকেট শাকিল রশিদ চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক আতাউর রহমান আতা, আব্দুল লতিফ, রাইয়ান বকস, সাজ্জাদুর রহমান, সারোয়ার খান বাবলু, উপজেলা বিএনপির স্বাস্থ্য সম্পাদক সাহেদ উদ্দিন চৌধুরী, সহ-কৃষি সম্পাদক আব্দুল মানিক, ভুকশিমইল ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি তারু খান, সম্পাদক ইলিয়াস মিয়া, ভাটেরা ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি শফিকুর রহমান আফার, সম্পাদক সৈয়দ রনি হাসান সালাম প্রমুখ।

অলোচনার শেষে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক উপস্থিত ও অনুপস্থিত সবার প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে সকলে ঐক্যবদ্ধ থেকে সংগঠনটিকে এগিয়ে নেয়ার আহ্বান জানিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

উল্লেখ্য, বহির্বিশ্ব জাতীয়তাবাদী ফোরাম কুলাউড়ার উদ্যোগে গত (১৬ মে ) এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় কুলাউড়া উপজেলার একটি পৌরসভা ও ১৩ টি ইউনিয়নে ১৪ টি ঘর তৈরীর সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। তারই ধারাবাহিকতায় (১২ সেপ্টেম্বর) রবিবার বাস্তবায়নে পা রাখলো। বক্তরা এ নিয়ে বলেন বহির্বিশ্ব জাতীয়তাবাদী ফোরাম কুলাউড়ার সদস্যর অর্থায়নে ১৪ টি ঘর তৈরী করা অসম্ভবের কিছু নয় ধাপে ধাপে প্রত্যেকটা ঘর নির্মাণ করা হবে। বর্তমানে ঘর দুটির অর্থায়ন করেন বহির্বিশ্ব জাতীয়তাবাদী ফোরাম কুলাউড়ার সভাপতি অধ্যাপক ডক্টর সাইফুল আলম চৌধুরী ও সাংগঠনিক সম্পাদক আতাউর রহমান আতা। তারা বলেন বর্তমানে উপজেলার পৃথক ৬টি ইউনিয়নে ঘর নির্মান করে দেয়া হচ্ছে । পর্যায়ক্রমে তা উপজেলার ১৩টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার অসহায়দের চিহ্নিত করে প্রদান করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *